হিলিতে বাংলাদেশি-ভারতীয় ব্যবসায়ীদের বৈঠক

স্বাস্থ্যবিধি মেনে শনিবার থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি চালু করতে দুই-দেশের ব্যবসায়ীদের মাঝে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (৫ জুন) বিকেলে সীমান্তের জিরো পয়েন্ট এলাকায় দুই-দেশের ব্যবসায়ী নেতাদের উপস্থিতিতে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠক শেষে হিলি সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের সভাপতি কামাল হোসেন রাজ জানান, করোনার কারণে দীর্ঘ দুই মাস ধরে এ বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বন্ধ আছে। করোনার সময়ে স্বাস্থ্যবিধিসহ অন্য নির্দেশনা মেনে কাল থেকে আমদানি-রফতানি শুরু করতে আজকের এ বৈঠক। প্রতিদিন আমদানি-রফতানির জন্য ৪০টি পণ্যবাহী ট্রাক দিতে ভারতীয় ব্যবসায়ীরা সম্মতি দিয়েছে।

হিলি পানামা পোর্ট লিংকের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন মল্লিক জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম চালু করতে পানামার পক্ষ থেকে সবধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এছাড়া ভারতীয় চালকরা যাতে পোর্টের বাইরে যেতে না পারে, যেটাকে আমরা কোয়ারেনটাইন বলি সেটা নিশ্চিত করতেও কাজ করে যাচ্ছি।

এ সময় ভারতের কাস্টমস এক্সপোর্টার সভাপতি আলাউদ্দিন মণ্ডল, সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব মজুমদার এবং বাংলাদেশের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের সভাপতি কামাল হোসেন রাজ, আমদানি-রফতানি গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান, পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত, বিজিবির সিপি ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার ইয়াসিন, পানামা পোর্টের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন প্রতাব মল্লিক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।